ডক্টর মুহম্মদ শহীদুল্লাহ- বহুভাষাবিদ এবং একজন স্মরণীয় বাঙ্গালী ব্যাক্তিত্ব

Share:


ডক্টর মুহম্মদ শহীদুল্লাহ অবিভক্ত ভারতের পশ্চিমবঙ্গের চব্বিশ পরগনা জেলার পেয়ারা গ্রামে ১৮৮৫ সালে জন্মগ্রহণ করেন।তিনি হাওড়া জেলা স্কুল থেকে এন্ট্রান্স এবং কলকাতা প্রেসিডেন্সি কলেজ থেকে এফ এ পাস করেন। ১৯১০ সালে সিটি কলেজ থেকে সংস্কৃতে সম্মানসহ বিএ পাস করেন। এরপর প্যারিসের সোরবোর্ণ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তিনি পিএইচডি ডিগ্রী লাভ করেন।
  
মুহম্মদ শহীদুল্লাহ এর কর্মজীবনঃ ছাত্র অবস্থাতেই তিনি যশোর জেলা স্কুলে শিক্ষকতা করেছিলেন। কিছুকাল তিনি আইন ব্যবসা করেন। এরপর ড. দীনেশ চন্দ্র সেন এর সহকর্মী হিসেবে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষক হিসেবে কাজ করেন। ১৯২১ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা ও সংস্কৃতের প্রভাষক হিসেবে যোগ দেন। এরপর আইন বিভাগেও খন্ডকালীন শিক্ষকের ভূমিকা পালন করেন। অবসরের পর আজিজুল হক কলেজের প্রিন্সিপাল হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন। এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ফরাসী এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে সংস্কৃত ও পালি বিভাগে তিনি যোগ দিয়েছিলেন। উর্দু ভাষার অভিধান প্রকল্পেও তিনি কাজ করেছিলেন।

ডক্টর মুহম্মদ শহীদুল্লাহ এর লেখা বই
  • ভাষা ও সাহিত্য
  • বাংলা ভাষার ইতিবৃত্ত
  • দীওয়ানে হাফিজ
  • রুবাইয়াত-ই-ওমর খৈয়াম
  • বিদ্যাপতি শতক
  • বাংলা সাহিত্যের কথা (২ খণ্ড)
  • বাংলা ভাষার ব্যাকরণ
  • বাংলাদেশের আঞ্চলিক ভাষার অভিধান
ভাষা আন্দোলনে তার গুরুত্বপূর্ণ ও জোরালো ভূমিকা ছিল। ফ্রান্সের সরকারের কাছ থেকে তিনি "নাইট অফ দ্যা অর্ডার অফ আর্টস এন্ড লেটারস" পদক পান। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় তাকে বিদ্যাবাচস্পতি উপাধি দেয়, এছাড়া পরে ডি লিট উপাধি দেয়। পাকিস্তান সরকারের কাছ থেকে 'হিলাল ই ইমতিয়াজ' উপাধি পান। ভারতীয় কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশন তাকে সম্মানীত ফেলো হিসেবে মনোনয়ন দেয়। কিন্তু তৎকালীন পাকিস্তান সরকারের অনুমতি না থাকায় তিনি তা গ্রহণ করেননি।১৯৬৯ সালে তিনি মৃত্যুবরণ করেন,  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদুল্লাহ হলের নামকরণ তার নামেই করা হয়েছিল। 

No comments